সৌদিতে বাস দুর্ঘটনায় নিহতদের ২ জনের বাড়ি নোয়াখালীতে

নিউজ ডেস্ক:

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলীয় আসির প্রদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত আট বাংলাদেশির মধ্যে দুজনের বাড়ি নোয়াখালীতে। তারা হলেন সেনবাগ উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ মোহাম্মদপুর গ্রামের মালেক মোল্লা বাড়ির শরিয়ত উল্লাহর ছেলে মো. শহীদুল ইসলাম (২৬) ও চাটখিল উপজেলার নাহারখিল ইউনিয়নের পশ্চিম রামনারায়ণপুর ভূঁইয়াজি বাড়ির মৃত হুমায়ুন কবিরের ছেলে মো. হেলাল উদ্দিন (৩৪)।

সেনবাগের শহীদুলের চাচা মো. বাবুল বলেন, দুই ভাই এক বোনের মধ্যে শহীদুল সবার বড় ছিলেন। এক বছর আগে জীবিকার সন্ধানে সৌদি আরব যান তিনি। সেখানে একটি দোকানে কাজ করতেন। ওমরা করতে মক্কা যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হন শহীদুল।

অন্যদিকে চাটখিলের হেলালের ভাই মো. রিপন বলেন, ১৩ মাস আগে জীবিকার তাগিদে সৌদি আরব যান হেলাল। সেখানে একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করতেন। দুই ভাই দুই বোনের মধ্যে হেলাল সবার বড়। হাজাবী নামে তিন বছর বয়সী একটি কন্যা সন্তানও আছে তার।

নিহতের স্বজনদের দাবি, তাদের মরদেহ যাতে দ্রুত দেশে আনার ব্যবস্থা করা হয়। এ জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলীয় আসির প্রদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ২২ জন ওমরাহযাত্রী নিহত হন। এরমধ্যে আটজন প্রবাসী বাংলাদেশি। এ ঘটনায় আরও অন্তত ১৮ জন বাংলাদেশি আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

সোমবার (২৭ মার্চ) স্থানীয় সময় বিকেলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ওমরাহযাত্রীদের বহনকারী ওই বাস ইয়েমেন সীমান্তবর্তী আসির প্রদেশের আকাবা শার এলাকার একটি সেতুর সঙ্গে সজোরে ধাক্কা খায়। এতে বাসটি উল্টে যায়। একপর্যায়ে গাড়িতে আগুন ধরে প্রাণহানি ঘটে।