সম্পাদকীয় সংবাদ

জামিন পেলেন সম্পাদক: সোনাইমুড়ী থানার ওসি ও তদন্তকারী কর্মকর্তাকে শোকজ

বিশেষ প্রতিনিধি, নোয়াখালীঃ

2020-01-07 03:13:00


বদিউজ্জামান তুহিন:

জামিন পেলেন দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি পত্রিকার সম্পাদক এম জি কিবরিয়া চৌধুরী। রবিবার রাতে তাকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তার নয়াপল্টনের কার্যালয় থেকে পল্টন থানা পুলিশের সহযোগিতায় সোনাইমুড়ি থানা পুলিশ গ্রেফতার করে। আজ বিকেলে নোয়াখালী বিচারিক আদালতে ৬নং আমলী আদালতের বিচারক মোঃ সায়দীন নাহি তার জামিন মঞ্জুর করেন।

তমা গ্রুপের মালিক আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক বিগত ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ইং পত্রিকার চেয়ারম্যান মনিরুন্নেছা রিনু ও সম্পাদক এম জি কিবরিয়া চৌধুরীর বিরুদ্ধে সোনাইমুড়ী থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ২৫/০২/২৯(১) ধারায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার ভিত্তিতে গতকাল রাতে তাকে গ্রেফতার করে সোনাইমুড়ী থানায় নিয়ে আসা হয়। আজ তাকে আদালতে প্রেরণ করা হলে বিজ্ঞ আদালত শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন। এছাড়াও আদেশে সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুস সামাদ ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রেজাউল হক কে শোকজ করা হয় এবং অ-আমল যোগ্য মামলায় আদালতের বিনা অনুমতিতে কিভাবে তাকে গ্রেফতার করা হলো আদালতে স্ব শরীরে উপস্থিত হয়ে তার জবাব দেয়ার জন্য বিজ্ঞ আদালত আদেশ দেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ২৭ নভেম্বর ২০১৯ইং তারিখে দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি পত্রিকায় “তমা গ্রুপের মানিক হাজার কোটি টাকার মালিক, জামাত শিবির বিএনপি হয়ে নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি” শিরোনামে বিশেষ প্রতিনিধির বরাত দিয়ে একটি সংবাদ পরিবেশন করেন। উক্ত সংবাদে আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক ক্ষিপ্ত হয়ে ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ইং তারিখে সোনাইমুড়ী থানায় একটি মানহানী মামলা করেন। যার নং-১৫/১৯। বর্তমান জি.আর মামলা নং- ৩০০৬/১৯।

জামিনে মুক্তি পাওয়ার পর কিবরিয়া চৌধুরী তার প্রতিক্রিয়ায় জানান, পুলিশ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপব্যবহার করে সাংবাদিকদের হয়রানী করছে। পুলিশের কাছে আমার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা আছে কিনা জানতে চাইলে তারা আমাকে কোন কথা বলতে দেয়নি। এ আইনটি প্রণয়ণের সাথে আমি সম্পৃক্ত ছিলাম। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করতে হলে দেশের একমাত্র বিশেষ ট্রাইবুনাল আদালত ঢাকাতে রয়েছে। সে আদালতে মামলা দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালত ব্যবস্থা নিবেন। কিন্তু সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ এই মামলা রুজু করতে পারে না এবং বিনা ওয়ারেন্টে আমাকে গ্রেফতার দেখাতে পারে না।